33.9 C
Dhaka
১৩ মার্চ, বুধবার , ২০১৯ ০৭:৩০:৩৫ অপরাহ্ণ
ভয়েস বাংলা
প্রচ্ছদ

বিদেশ যেতে কম সুদে ঋণ দেবে ব্যাংক

IMAGE EDIT11111জদহকামরুন্নাহার রুমা:   বাংলাদেশ থেকে যারা মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মী হিসেবে যান তাদের বেশিরভাগেরই নিজস্ব কোন অর্থের ব্যবস্থা থাকে না। ফলে অনেককেই বিদেশ যাওয়ার জন্য জমিজমা বিক্রি করতে হয় অথবা চড়া সুদে ঋণ নিতে হয়। আর যারা চড়া সুদে ঋণ নিয়ে বিদেশ যান, তাদের সুদ গুণতে গুণতেই অবস্থা কাহিল হয়ে যায়।

এ সমস্যার সমাধানের জন্য  এগিয়ে এসেছে বেশ কয়েকটি ব্যংক। কম সুদে  ঋণ দিচ্ছে তারা। প্রবাসীদের জন্য সরকার প্রবাসীকল্যাণ ব্যাংক চালু করেছে।  প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক বিদেশ যেতে ইচ্ছুকদের স্বল্প সুদে  ঋণ দিয়ে থাকে। এ জন্য শুধু  বিদেশে চাকরির নিয়োগপত্র দেখিয়েই ঋণ নিতে পারেন।  এখন প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের পাশাপাশি সোনালী, অগ্রণী, জনতাসহ সরকারি-বেসরকারি আরও অনেক ব্যাংকই বিদেশে যাওয়ার জন্য স্বল্পসুদে ঋণ দিয়ে থাকে। এমন কিছু ব্যাংকের নাম ও ঋণ নেয়ার নিয়ম এবং প্রক্রিয়া তুলে ধরা হলো-

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক

বিদেশ যেতে ইচ্ছুক কিন্তু আর্থিকভাবে খুব বেশি স্বচ্ছল নয়। তাদের জন্যই জামানত ছাড়া সরকারিভাবে ঋণ দিচ্ছে প্রবাসীকল্যাণ ব্যাংক। এখানে ঋণ পাওয়ার জন্য বাড়তি কোনো টাকা খরচ করতে হয় না।

আবেদনের নিয়ম: প্রবাসীকল্যাণ ব্যাংক থেকে ঋণ পাওয়ার পূর্বশর্ত হচ্ছে বিদেশে যাওয়ার ভিসা নিশ্চিত হতে হবে। ভিসা পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ প্রবাসীকল্যাণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবর ঋণের আবেদন করতে হবে। এ সময়ে প্রয়োজন হয় নিজের হাতে লেখা অভিবাসন ব্যয়ের বিবরণী, আবেদনকারির জামিনদারদের প্রত্যেকের দুই কপি সত্যায়িত ছবি, ভোটার আইডি কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি এবং বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানাসহ পৌরসভা বা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে নাগরিক সার্টিফিকেটের সত্যায়িত ফটোকপি। এ ছাড়া আবেদনকারীর সব আয় নিযুক্ত প্রতিনিধির মাধ্যমে এই ব্যাংকে পাঠানো হবে মর্মে ১৫০ টাকার নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে অঙ্গিকারনামাও তৈরি করতে হবে।   ভিসা সঠিক কি না, তা ব্যাংক থেকে যাচাই করা হয় বলে ভিসাসংক্রান্ত কাগজপত্রও দেখানোর প্রয়োজন পড়ে। এসব কাগজ পত্রের মধ্যে রয়েছে দূতাবাস থেকে ইস্যু করা ভিসা বা লেবার কন্ট্রাক্ট, শারীরিক যোগ্যতার সার্টিফিকেট, বিএমইটি থেকে পাওয়া স্মার্ট কার্ড, ম্যানপাওয়ার ক্লিয়ারেন্স কার্ড, প্রশিক্ষণ ও অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট, বিমানের টিকিট, পাসপোর্ট ইত্যাদি। বলা হচ্ছে যে প্রবাসীকল্যাণ ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো এখানে কোনো ধরনের জামানত প্রয়োজন হয় না। তবে দুজন সক্ষম ব্যক্তিকে  গ্যারান্টার বা জামিনদার হিসেবে দেখাতে হয়। বিদেশ যাওয়ার দুই মাস পর থেকে ঋণের টাকা জমা দিতে হয়। ঋণ শোধ করা যাবে দুই থেকে তিন বছরেও। এই ঋণে সুদের হারও কম—শতকরা ৯ ভাগ।

সাধারণত আবেদনের পর দুই দিনের মধ্যেই ঋণের টাকা পাওয়া যায়। অনেক সময় তিন ঘণ্টার মধ্যেও ঋণ দেওয়া হয়। এটি নির্ভর করে গ্রাহকের চাহিদা এবং ভিসা সঠিক আছে কি না তা যাচাইয়ের ওপর। ঋণ দেওয়ার সময় সরকার নির্ধারিত খরচ এবং চাহিদার ওপর নির্ভর করে ৪০ হাজার থেকে এক লাখ টাকা পর্য্ন্ত ঋণ দেওয়া হয়ে থাকে। যোগাযোগ :৭১-৭২, পুরাতন এলিফ্যান্ট রোড, ইস্কাটন, ঢাকা। ফোন : ৮৩২২৮৭৩, ৮৩২১৮৭৮।

সোনালী ব্যাংক

সোনালি ব্যাংকের এই ঋণ প্রকল্পের নাম  ‘প্রবাসী কর্মসংস্থান ঋণ প্রকল্প’। ঋণের পরিমাণ সর্বোচ্চ ৩ লাখ টাকা এবং পরিশোধের মেয়াদ সর্বোচ্চ ৩ বছর। বিদেশ যাওয়ার পরে দুই বছরে ২৪ কিস্তি বা তিন বছরে বা ৩৬ কিস্তিতে ঋণ পরিশোধ করতে হবে। প্রতি মাসে একটি করে কিস্তি দিতে হবে। ঋণের সুদের হার সরল সুদে ১২ শতাংশ।

অগ্রনী ব্যাংক

অগ্রনী ব্যাংকের প্রকল্পের নাম ‘প্রবাসী ঋণ প্রকল্প’ এবং ঋণের পরিমাণ সর্বোচ্চ ৩ লাখ টাকা। ১৫ থেকে ১৮ মাসের কিস্তিতে অর্থাৎ সর্বোচ্চ দেড় বছরের মধ্যে ঋণ পরিশোধ করতে হবে। সুদের হার ৯ শতাংশ।

পূবালী ব্যাংক

পূবালী ব্যাংক তাদের প্রকল্পটির নাম দিয়েছে ‘নন-রেসিডেন্ট ক্রেডিট স্কিম’। ঋণের পরিমাণ সর্বোচ্চ আড়াই লাখ টাকা এবং ঋণ পরিশোধের মেয়াদ ২ বছর অর্থাৎ ২৪ মাস। মাসিক কিস্তিতে টাকা পরিশোধ করতে হবে। সুদের হার ১৩ শতাংশ।  ঝামেলামুক্ত ও দ্রুত সময়ে এ ঋণ দেওয়া হয়। উল্লেখিত নিয়ম-কানুনসহ  ঋণগ্রহীতা, গ্যারান্টার ও ব্যাংকের মধ্যে ত্রিপক্ষীয় চুক্তিনামা করতে হবে। তবে কোনো জামানতের প্রয়োজন নেই।

এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক

প্রকল্পটির নাম ‘এনআরবি মাইগ্রেশন লোন’। সর্বোচ্চ ঋণের পরিমাণ ৩ লাখ টাকা এবং সুদের হার ১৪ শতাংশ। ১২, ২৪ ও ৩৬ মাসিক কিস্তিতে অর্থাৎ এক, দুই ও তিন বছরে ঋণ পরিশোধ করতে হবে। গ্রেস প্রিরিয়ড ৩ মাস। বিদেশ যাওয়ার ৩ মাস পর থেকে ঋণের মাসিক কিস্তি পরিশোধ করতে হবে। ১৮-৫৫ বছর বয়সীদের এই ঋণ দিয়ে থাকে ব্যাংকটি। উল্লেখ্য, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের মতোই সব ব্যাংকের ঋণের আবেদন করতে হবে।

সম্পাদনা: ফারিয়া চৈতী

সম্পর্কিত

বাংলাদেশিদের ‘অন অ্যারাইভাল’ ভিসা দিতে কাতার প্রবাসীদের আহবান

ডেস্ক রিপোর্ট

ইতালির ভারি শিল্পে ধস; ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসীরা

ডেস্ক রিপোর্ট

ডিএসসিসির ৯০% বর্জ্য অপসারণ সম্পন্ন: মেয়র খোকন

ডেস্ক রিপোর্ট

২০১৮ সাল থেকে নতুন করে প্রবাসী গৃহকর্মী নেবে মালয়েশিয়া

ডেস্ক রিপোর্ট

বিতাড়িত হওয়ার আশঙ্কায় দেড় লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি

ডেস্ক রিপোর্ট

জয় দিয়েই শুরু হলো বাংলাদেশের

ডেস্ক রিপোর্ট

২ মতামত

মতামত